Home > সংবাদ > তথ্য গোপন রেখে ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌছে দিয়েছে নেস্ট

আর আহমেদ: মহামারি করোনাভাইরাসের প্রভাবে পুরো বিশ্ব লন্ডভন্ড। বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া কোভিড-১৯ মোকাবিলায় হিমশিম খাচ্ছে গোটা দুনিয়া। এর আচ এসে লেগেছে বাংলাদেশেও। দেশে করোনার প্রকোপ দিন দিন বেড়েই চলেছে। করোনা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে শুরু করে অফিস-আদালত, গণপরিবহন সবই বন্ধ। ফলে দুর্বিপাকে পড়েছেন অসহায়, দিনমজুর, রিক্সাচালক ও অসচ্ছল মানুষ। এই সময়টায় খাদ্য সংকটে পড়েছে অসচ্ছল মানুষেরা। যদিও ইতিমধ্যে সরকার ত্রাণ বিতরণ শুরু করেছেন। কিন্তু বেশি সমস্যায় পড়েছেন নিম্ন মধ্যবিত্ত পরিবার গুলি। যারা লোকলজ্জায় সরাসরি লাইনে দাড়িয়ে ত্রাণ সহায়তা নিতে চান না সেই রকম ১২০ পরিবারে মাঝে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন নেস্ট।

ত্রাণ গ্রহিতার তথ্য গোপন রেখেই আজ বৃহস্পতিবার (৯ই এপ্রিল) রাজধানী ঢাকার যাত্রাবাড়ী এলাকায় বিতরণ কার্য্য সম্পূর্ণ করেছেন তারা।

গোপনীয় ভাবে ত্রাণ বিতরণ সম্পর্কে নেস্ট এর মহাসচিব রিদওয়ান আহমেদ বলেন, আমাদের সমাজে এমন অনেক পরিবার আছে যারা লোকলজ্জায় লাইনে দাড়িয়ে ত্রাণ নিতে সংকোচ বোধ করেন। খাদ্য সংকট থাকা সত্বেও করো কাছে বলতে পারছেন না। আমরা খোজ নিয়ে সেই রকম ১২০ পরিবারের তালিকা তৈরি করি। পরে নেস্ট সদস্যদের স্বতঃফুর্ত সহযোগীতায় খাদ্যসামগ্রী ক্রয় এবং প্যাকেটিং করে আমাদের সদস্যের মাধ্যমেই তালিকাভুক্তদের বাসায় খাদ্যসামগ্রী পৌছে দিয়েছি। বেশি নেকের আশায় পবিত্র শবে বরাতের রাতটিকেই বিতরণের জন্য নির্বাচিত করেছি। খাদ্যসামগ্রীর মধ্যে ছিলো চাল, ডাল, আলু, পেয়াজ ও লবণ।

উক্ত কর্মসূচী বাস্তবায়নে সর্বাত্মক সহযোগীতা করেছেন, সাহেদ কবির, সাজ্জাদ হোসেন, মেহের হাসান শাকিল, সামছুদ্দিন স্বপন, কামরুল হাসান ফয়সাল, মো: জাকির হোসেন, ফয়সাল রহমান অপু, হাসিব, এ্যাডভোকেট নাজনীন ইভা, রুম্পা আক্তার, মাহফুজা শাহনা তোরা প্রমুখ।

২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠিত সংগঠনটি প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকেই আর্ত-মানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছে। দেশের প্রাকৃতিক দুর্যোগসহ নানা ক্লান্তিলগ্নে অসহায় মানুষের পাশে দাড়িয়েছে সংগঠনটি।